ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকিং থেকে বাঁচানোর উপায়

ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকিং থেকে বাঁচানোর উপায়

অনেক সময় আমাদের ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকিং এর শিকার হয়। এক্ষেত্রে অনেকটাই চ্যানেলের বেসিক সিকিউরিটি সম্পর্কে আমাদের অসচেতনতাই দায়ী। কয়েকটা ব্যাপারে খেয়াল রাখলেই আমরা আমাদের শখের ইউটিউব চ্যানেলকে হ্যাকিং থেকে ৯৯% সুরক্ষিত রাখতে পারি।

১। আপনার চ্যানেলকে Brand একাউন্টে স্থানান্তর করুন।

ইউটিউব চ্যানেল দুই ধরনের হয়ে থাকে।

  • Personal Account (শুধুমাত্র একটি ইমেইল দিয়ে চ্যানেল ম্যানেজ করা যায়)
  • Brand Account (একাধিক ইমেইল দিয়ে চ্যানেল ম্যানেজ করা যায় অর্থাৎ একাধিক Admin এড করা যায়)

আপনার চ্যানেল যেই ক্যাটাগরিরই হোক না কেন, অবশ্যই Brand একাউন্টে কনভার্ট করে নিবেন। Brand একাউন্টের Primary Owner কে রিমুভ করতে মিনিমাম একদিন সময় প্রয়োজন। অন্যদিকে Personal Account এ যেহেতু শুধুমাত্র একটি ইমেইল দিয়ে ম্যানেজ করার অপশন থাকে তাই এই সুবিধেটা পাওয়া যায়না।

এক্ষেত্রে Brand Account এ Primary Owner যেই ইমেইল ইউজ করবেন সেটা যেন পাবলিকলি কেউ না জানে। তাহলে সুবিধে হলো। অন্য একটি এডমিন ইমেইল হ্যাক হয়ে গেলেও আপনি একদিন সময় পাচ্ছেন হ্যাক হওয়া ইমেইল চ্যানেল থেকে রিমুভ করে দেওয়ার।

২। Brand Account এর ইউনিক ইমেইল এড্রেস কালেক্ট করে রাখুন।

প্রতিটা ব্রান্ড একাউন্টেই একটি ইউনিক ইমেইল এড্রেস থাকে। এটা খুঁজে পেতে প্রথমে নিচের লিংকে ক্লিক করুন:

https://myaccount.google.com/brandaccounts

ক্লিক করার পর নিচের মত একটি পেইজ ওপেন হবে, যেখানে আপনি আপনার Brand Account এর লিস্ট দেখতে পাবেন।

Brand Account এর চ্যানেলে ক্লিক করার পর নিচের মত আরেকটি পেইজ আসবে। এখান থেকে VIEW GENERAL ACCOUNT INFO তে ক্লিক করুন।

এবার নিচের মত আরেকটি পেইজ আসবে। এখানে বাম পাশে Personal info তে ক্লিক করুন।

এবার নিচের মত আরেকটি নতুন পেজ ওপেন হবে। এখানে নিচের দিকে Contact info তে একটি ইমেইল এড্রেস পাবেন। এটাই হচ্ছে Brand Account এর ইউনিক ইমেইল। এটা সংগ্রহ করে রাখুন।

কখনো আপনার চ্যানেল হ্যাক হয়ে গেলেও হ্যাকার আপনার Brand একাউন্টের এই ইমেইল রিমুভ করতে পারবে না। আপনার চ্যানেল যদি হ্যাকার মুভ করে অন্য একাউন্টেও নিয়ে যায় তারপরেও এই ইউনিক ইমেইল এড্রেস টা থেকে যাবে। এতা দিয়ে আপনি আপনার চ্যানেল Identify করতে পারবেন। এবং ইউটিউবের সাপোর্টে যোগযোগ করার সময়ও এই ইমেইল আপনার অনেক কাজে দিবে।

৩। আপনার ইমেইলে Two Factor Authentication অবশ্যই চালু করে রাখুন।

অন্যান্য টিপস:

  • আপনার চ্যানেলের মূল ইমেইল আইডির রিকভারি ইমেইল, ফোন নাম্বার সব সময় আপডেটেড রাখুন। অর্থাৎ এমন রিকভারি ইমেইল ও মোবাইল ইউজ করবেন যেটা আপনার নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। রিকভারি ইমেইলের ক্ষেত্রে আপনার নিজের সেকেন্ড একটি ইমেইল ইউজ করতে পারেন।
  • যাচাই না করে আপনার ইমেইলে আসা অযাচিত লিংকে ক্লিক করবেন না। অনেক ক্ষেত্রে হুবুহু ইউটিউবের লগিন প্যানেলের মত ফিশিং লিংকের মাধ্যমেও চ্যানেল হ্যাক হতে পারে।
  • অবশ্যই শক্তিশালি পাসোয়ার্ড ব্যবহার করুন। এক্ষেত্রে স্পেশাল ক্যারেক্টার (*&%$#@), Numeric Number (96545), Capital and Small Letter (AdRt) মিলিয়ে পাসোয়ার্ড তৈরী করুন।

উপরে বর্ণিত টিপস গুলো ফলো করলে আশা করা যায় হ্যাক থেকে ৯৯% সুরিক্ষিত থাকবে। আর কোন কারণে হ্যাক হয়ে গেলেও সহজে ফিরিয়ে আনতে পারবেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *